জটিল মানসিক রোগ সিজোফ্রেনিয়ার লক্ষণ ও চিকিৎসা

লক্ষণ
১) রোগী একা একা কথা বলবেন, মনে হবে তিনি অলৌকিক কারও সঙ্গে যেমন ভূত-প্রেত-জিন বা আত্মার সঙ্গে কথা বলছেন।

২) রোগী বলবেন, তিনি গায়েবি আওয়াজ শুনতে পান। যেন কেউ তার সঙ্গে কথা বলে।

৩) তিনি দাবি করবেন, তিনি অশরীরী আত্মা, মানুষ ইত্যাদি দেখতে পান, যা তার চারপাশে কেউ দেখতে পায় না।

৪) তার দৈনন্দিন কাজকর্ম সব অগোছালো থাকবে।

৫) অপরিচ্ছন্ন, নোংরা, ন্যাংটা থাকবেন।

৬) নিজের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার দিকে তার কোনো খেয়াল থাকবে না। অর্থাৎ পরিচ্ছন্নতা জ্ঞান থাকবে না।

৭) এতটাই অপরিচ্ছন্ন যে তার গা থেকে ময়লার দুর্গন্ধ বের হবে। তার নখ, চুল, দাড়ি, পরিধেয় বস্ত্র নোংরা থাকবে। মাছি ভন ভন করবে।

৮) উল্টোপাল্টা কথা বলবে।

৯) নিজেকে আধ্যাত্মিক ব্যক্তি হিসেবে দাবি করতে পারেন। যদিও তার মধ্যে ধর্মীয় পবিত্রতা বলতে কিছু থাকবে না।

১০) তার মানসিক রোগ আছে এটা বুঝতে পারবেন না।

চিকিৎসা

ব্রেইনের ডোপামিন নিউরোট্রান্সমিটারের অত্যধিক নিঃসরণের জন্য এমন হয়, তাই ডোপামিন রিসেপ্টর ব্লকার অলানজাপিন, রেসপেরিডন জাতীয় ওষুধ দেওয়া হয়। এই ওষুধ খুব কার্যকরী। নির্দিষ্ট মেয়াদের চিকিৎসায় রোগী আরোগ্য লাভ করেন।

ডা. সাঈদ এনাম
এমবিবিএস (ডিএমসি), এম ফিল (সাইকিয়াট্রি)
বিসিএস (স্বাস্থ্য)
সহকারী অধ্যাপক, ( সাইকিয়াট্রি)
ফেলো, আমেরিকান সাইকিয়াট্রিক এসোসিয়েশন।