জেনে নিন কোন রোগের জন্য কোন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের কাছে যাবেন?

আপনার রোগের চিকিৎসার জন্য কোন বিশেষজ্ঞের কাছে যাবে??

হঠাৎ অসুস্থ হলে চিকিৎসার জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের শরণাপন্ন হওয়ার কথা সবই জানেন। তবে যেকোনো রোগের চিকিৎসা কিন্তু যেকোনো চিকিৎসকই দেন না। রোগীর সুচিকিৎসা নিশ্চিতে চিকিৎসকদের কিছু শ্রেণিবিভাগ রয়েছে। আর সে শ্রেণিবিভাগ অনুযায়ীই চিকিৎসকরা চিকিৎসা সেবা রোগীদের দিয়ে থাকেন।

রোগাক্রান্ত হলে নির্দিষ্ট রোগের চিকিৎসা পেতে আপনাকে নির্দিষ্ট চিকিৎসকের কাছেই যেতে হবে। তাই রোগভেদে আপনাকে কোন চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে তা জানা প্রয়োজন।

আমেরিকান হেলথলাইনের একটি প্রতিবেদন অনুসারে আসুন জেনে নিই, কোন রোগের জন্য কোন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক চিকিৎসা দিয়ে থাকেন।
 
১. ইএনটি ডাক্তার: নাক, কান, গলায় যেকোনো সমস্যা বা অসুখ হলে এর চিকিৎসার জন্য আপনাকে একজন ইএনটি বিশেষজ্ঞকে দেখাতে হবে। নাক, কান, গলাকে সংক্ষেপে বলা হয় ইএনটি। আর এর বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের বলা হয় ইএনটি ডাক্তার।
 
২. ডার্মাটোলোজিস্ট ডাক্তার: কোন অসুখে একজন ডার্মাটোলোজিস্ট ডাক্তারের শরণাপন্ন হবেন জানেন? ত্বক, চুল, নখ, মুখ-নাকের ঝিল্লি এবং চোখের পাতার আস্তরণে কোনো সমস্যা অনুভব করলে একজন চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ বা ডার্মাটোলোজিস্ট ডাক্তারের কাছে চিকিৎসা নিতে হবে।
 
৩. নিউরোলজিস্ট ডাক্তার: একজন নিউরোলজিস্ট বা স্নায়ুতন্ত্রের বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের কাছে তখনই যাবেন যখন মস্তিষ্কজনিত ব্যধিতে আপনি ভুগবেন। মনে রাখবেন, স্নায়ুতন্ত্র একটি বিশাল নেটওয়ার্ক যা শরীরের সব অঙ্গের ক্রিয়াকলাপে কাজ করে। তাই হাত বা পায়ে সমস্যা হলে সেটা স্নায়ু জনিত নাকি পেশী সমস্যাজনিত তাও নিশ্চিত হওয়া প্রয়োজন। বর্তমান সময়ে স্ট্রোকের সমস্যা বেড়েছে। মনে রাখবেন স্ট্রোকের রোগীর চিকিৎসায় দ্রুত আপনাকে নিউরোলজিস্ট বা স্নায়ুতন্ত্রের বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের চিকিৎসা পরামর্শ নিতে হবে।
 
৪. পডিয়াট্রিস্ট: পা, গোড়ালি বা পায়ে প্রভাব ফেলছে এমন কোনো অবস্থায় এই ধরনের বিশেষজ্ঞের কাছে যেতে হবে। একজন পডিয়াট্রিস্ট পায়ের পাতা, গোড়ালি, পা এবং তার আশপাশের কাঠামোর অবস্থা নির্ণয় এবং চিকিৎসা করেন।
 
৫. অর্থোপেডিক্স বিশেষজ্ঞ: হাড়ের সাথে সম্পর্ক রয়েছে এমন সব রোগের চিকিৎসায় একজন অর্থোপেডিক্স বিশেষজ্ঞর পরামর্শ আপনাকে নিতে হবে। অর্থোপেডিক্স বিশেষজ্ঞরা হাড় ভাঙা, হাড় জোড়া, হাড় ক্ষয়, হাড়ের জয়েন্টে ব্যথা, হাঁটুতে ব্যথা, পঙ্গুত্বসহ শরীরের হাড়ের সব ধরনের চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকেন।
 
৬. সাইকিয়াট্রিস্ট বা সাইকোলজিস্ট বা মনোরোগ বিশেষজ্ঞ: মানসিক অবসাদ, বিষণ্নতাসহ বিভিন্ন মানসিক সমস্যার চিকিৎসার জন্য একজন মনোরোগ বিশেষজ্ঞর কাছে আপনাকে যেতে হবে।
 
৭. কার্ডিওলজিস্ট বা হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ: হার্ট বা হৃৎপিণ্ডের যেকোনো সমস্যার চিকিৎসা নিতে আপনাকে হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের কাছে যেতে হবে। কার্ডিওলজিস্ট বা হৃদরোগ বিশেষজ্ঞরা হার্ট অ্যাটাক, বুকে ব্যথা, উচ্চ রক্তচাপ (হাইপারটেনশন), হার্ট ফেইলিওর, বুক ধড়ফড় করা ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা প্রদান করেন।
 
৮. গ্যাস্ট্রোলজি বিশেষজ্ঞ: এ ডাক্তারকে অনেকে হেপাটোলজি বা লিভার বা যকৃৎ বিশেষজ্ঞও বলে থাকেন। পরিপাকতন্ত্রের সমস্যা, জন্ডিস, গ্যাসের সমস্যা, হেপাটাইটিস বি ও সি ভাইরাস, লিভার সিরোসিস, খাদ্যনালি বা পাকস্থলীতে ক্ষত বা ঘা,খাবারের অরুচি, খিদে না পাওয়ার সমস্যা, লিভারে চর্বি ও পেটে গ্যাস, অ্যসিডিটি এমন রোগের চিকিৎসা দেন গ্যাস্ট্রোলজি বিশেষজ্ঞরা।
৯. বক্ষব্যাধি বিশেষজ্ঞ: অ্যাজমা বা হাঁপানি, শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা, নিউমোনিয়া ও দীর্ঘদিন যাবত কাশি, ফুসফুসে পানি জমা সমস্যায় ভুগলে আপনাকে একজন বক্ষব্যাধি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে। তারা মূলত ফুসফুসের সঙ্গে সম্পর্কিত বিভিন্ন রোগের চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকেন।
 
১০. চক্ষু বিশেষজ্ঞ: চোখের যেকোনো সমস্যাসহ চশমার পাওয়ারের বিভিন্ন বিষয়ে চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকেন চক্ষু বিশেষজ্ঞ বা আই স্পেশ্যালিস্টরা। অনেক সময় চোখের সমস্যা থেকে মাথা ব্যাথার সমস্যায় রোগীকে ভুগতে দেখা যায়। এমন পরিস্থিতিতে মাথা ব্যথার কারণ যদি চোখের সঙ্গে সম্পর্কিত হয় তবে সেক্ষেত্রে চিকিৎসা ও প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিয়ে থাকেন চক্ষু বিশেষজ্ঞরা।