হে প্রিয় বই উপহার দিও! – মামুনুর রশিদ

হে প্রিয় যদি পার বই উপহার দিও
করুণা করে হলেও দিও বই উপহার,
ভয় পেলে হাতে হাতে না হয় না দিও
পার্সেলে ভরে যত্ন করে পাঠিয়ে দিও
কোনো কুরিয়ারের মাধ্যম ব্যবহার করে।
বই খুব অল্প হলেও ক্ষতি নেই প্রিয় আমার,
শুধু সামান্য এতটুকু-ই দাবি বই উপহার দিও
সাদা, কালো, লাল, নীল,সবুজ কিংবা হলুদ
র‍্যাপিং পেপারে মুড়িয়ে দিও প্রিয় বই।
প্রেম, ভালোবাসা যদি বোঝাতে চাও
উপহার হিসেবে দিও প্রেমের উপন্যাস,
নয়তো সাহিত্য কিংবা কালজয়ী কোন উপন্যাস।
ইতিহাস, ঐতিহ্য কিংবা জ্ঞান বিজ্ঞানের বই দিও
ভয় দেখাতে চাইলে উপহার দিও কোন থিলার বই
ভুল করেও আবার দিও না একাডেমিক কোনো বই।
আজও তো আমি শুধু বই উপহার-ই চাই
পথ চেয়ে আমি বসে আছি আপন মনে
আসবে কোনো এক কুরিয়ারের লোক
তার হাতে পার্সেল দিও, যত্ন করে সে পৌঁছে দেবে।
পার্সেলের ভেতর দুই এক ডজন প্রিয় রং এর কলম
নয়তো যত্ন করে ডেইরি মিল্ক চকলেটও দিতে পারো।
ওইতো বাড়ির পাশদিয়ে কুরিয়ারের লোক যায়
মোটরসাইকেল করে আপন মনে চলছে
কাঁধে ব্যাগ হাতে অন্য কারো জন্য পার্সেল
এর কিছু-ই যে আমার জন্য নয় হে প্রিয়।
অকারণে আমি হাওয়ায় চিৎকার করে বলি,
আমার কি কোনো শুভাকাঙ্ক্ষী নেই হে প্রিয়?
হে প্রিয় করুণা করে হলেও বই উপহার দিও
ভুলে গিয়ে ভুল করে বইয়ের পার্সেল পাঠিও
যদি তোমার কাছে বই কেনার টাকা নাও থাকে!
তবে পড়ে-ই ফেরত দেয়ার কথা দিয়ে অন্য কারো
কাছ থেকে বই ধার নিয়ে আমাকে উপহার দিও না।
তবে করুণা করে হলেও প্রিয় বই উপহার দিও
মিথ্যা করে হলেও জিজ্ঞাসা করো বারবার…
আরো কোন বই লাগবে কী হে বই প্রিয়?