যে ১০টি জিনিস বর্ষায় চলতি পথে সঙ্গে রাখতে পারেন

বর্ষায় বাসা থেকে বের হওয়ার জন্য কিছুটা সতর্কতা অবলম্বন করতে হয়। কিছু প্রয়োজনীয় জিনিস সঙ্গে রাখলে এই মৌসুমে হঠাৎ বৃষ্টিতে বিড়ম্বনায় পড়ার আশঙ্কা কম থাকে।

চলুন জেনে নিই এই বর্ষায় নির্বিঘ্নে চলাচলের জন্য কোন ১০টি প্রয়োজনীয় জিনিস সঙ্গে রাখতে পারেন-

কমপ্যাক্ট ছাতা

বৃষ্টির দিনে ছাতা জরুরি অনুষঙ্গ। এমন ছাতা সঙ্গে রাখা উচিত, যা সহজেই ভাঁজ করে ব্যাগে ভরে রাখা যায়। বাহারি সব ডিজাইনের ছাতা রয়েছে। নিজের রুচির সঙ্গে মানানসই ডিজাইন ও রঙের ছাতা সঙ্গে রাখতে পারেন। সুন্দর ছাতা বৃষ্টি থেকে রক্ষার পাশাপাশি ফ্যাশনের কাজও করবে।

রেইনকোট

তীব্র বৃষ্টিতে কোথাও আটকে থাকতে না চাইলে রেইনকোট বা পানিরোধী জ্যাকেট ব্যবহার করতে পারেন। হালকা ও সহজে পরা যায়, এমন রেইনকোট কিনুন। বাজারে বিভিন্ন রং ও ডিজাইনের রেইনকোট পাওয়া যায়। বাজেটের মধ্যে রুচি অনুযায়ী রেইনকোট কিনতে পারেন।

পানিরোধী ব্যাকপ্যাক

পানিরোধী ব্যাকপ্যাক থাকলে বৃষ্টির দিনে আর বাড়তি চিন্তা করতে হয় না। বাজারে অসংখ্য ডিজাইনের ব্যাকপ্যাক পাওয়া যায়। নিত্যদিন ব্যবহারের জন্য কার্যকর একটি পানিরোধী ব্যাকপ্যাক কিনুন। এতে আপনার মূল্যবান সামগ্রী যেমন নিরাপদ থাকবে, তেমনি আপনাকেও ফ্যাশনেবল লাগবে। পর্যাপ্ত পকেট আছে, এমন ব্যাগ কিনুন।

পানিরোধী জুতা

বর্ষায় প্রায়ই রাস্তায় পানি অথবা কাদা জমে যায়। এমন রাস্তায় চামড়ার জুতা ব্যবহার করলে জুতা দ্রুত নষ্ট হয়ে যেতে পারে। তাই পানিরোধী জুতা ব্যবহার করা উচিত। এসব জুতা আবার পিচ্ছিল রাস্তায় চলাচলের জন্যও আদর্শ। এমন জুতা কিনুন, যা দিয়ে কাজও হবে আবার দেখতেও রুচিশীল মনে হবে।

পোর্টেবল শু কাভার

যারা পছন্দের জুতার ব্যাপারে কোনো ছাড় দিতে রাজি নন, তারা বর্ষার কাদা-পানি থেকে জুতা রক্ষায় শু কাভার ব্যবহার করতে পারেন। শু কাভার জুতাকে পানি ও ময়লা থেকে সুরক্ষিত রাখবে। হালকা ও ব্যাগে বহনযোগ্য শু কাভার কিনতে পারেন, যাতে প্রয়োজনের সময় ব্যাগ থেকে খুলে এটি ব্যবহার করতে পারেন।

মোবাইলের জন্য পানিরোধী কাভার

মোবাইল, ট্যাব বা অন্যান্য গ্যাজেট বৃষ্টিতে ভিজলে নষ্ট হয়ে যেতে পারে। তাই বর্ষায় চলাচলের সময় আপনার সঙ্গে থাকা গ্যাজেটগুলোকে সুরক্ষিত রাখতে সেগুলোর জন্য পানিরোধী কাভার ব্যবহার করুন।

ছোট তোয়ালে

বর্ষায় এটা খুবই জরুরি অনুষঙ্গ, কিন্তু আমরা অনেকেই অতটা গুরুত্ব দিই না। ব্যাগে যদি ছোট তোয়ালে থাকে, তাহলে হঠাৎ কিছুটা ভিজে গেলে মুছে ফেলতে পারবেন। এতে দীর্ঘক্ষণ ভেজা শরীরে থেকে জ্বরে পড়ার আশঙ্কা কমে যাবে। বৃষ্টির যেকোনো সময়ই তোয়ালে প্রয়োজন হতে পারে। তাই ব্যাগে ছোট একটি তোয়ালে রাখতে পারেন।

প্লাস্টিকের জিপলক ব্যাগ

বৃষ্টির মধ্যে মোবাইল, হেডফোন, মানিব্যাগ, ঘড়িসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ সামগ্রী নিরাপদে রাখতে প্লাস্টিকের জিপলক ব্যাগ সঙ্গে রাখতে পারেন। এই ব্যাগে জামাকাপড় অথবা খাবারও রাখা যায়। আপনার মূল্যবান জিনিসগুলোকে শুষ্ক ও সুরক্ষিত রাখবে এই ব্যাগ।

পানির বোতল

নিয়মিত পানি পান করা শরীরের জন্য খুবই জরুরি। তাই শুধু গ্রীষ্মকালে না, বর্ষাকালেও সঙ্গে পানির বোতল রাখা উচিত। ওয়ান টাইম নয়, আবারও ব্যবহার করা যাবে এমন পানির বোতল রাখবেন। পানির  বোতল কেনার সময় দেখতে হবে ব্যাগে দীর্ঘক্ষণ রাখলেও বোতল ঠিক থাকবে কি না বা সেখান থেকে পানি লিক করার আশঙ্কা আছে কি না। পছন্দমতো তাপমাত্রা ধরে রাখতে পারবে, পারলে এমন বোতল কিনুন।

ট্রাভেল সাইজের টয়লেট্রিজ সামগ্রী

বৃষ্টির দিনে আরও সতেজ অনুভূতি পেতে ব্যাগে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, চিরুনি ও ওয়েট ওয়াইপস রাখতে পারেন। ঝড়ো বাতাসে বা বৃষ্টিতে ভিজে চুল এলোমেলো হয়ে গেলেও চিরুনি দিয়ে আবারও পরিপাটি করে নিতে পারেন।

নিজের ফ্যাশন স্টাইল ঠিক রেখে বৃষ্টিতে নির্বিঘ্নে আপনার সব কাজ সম্পন্ন করতে এই জিনিসগুলো সঙ্গে রাখতে পারেন। বিশেষ করে ঢাকার মতো শহরগুলোর ক্ষেত্রে এ জিনিসগুলো ভালো কাজে আসবে।

অনুবাদ করেছেন আহমেদ হিমেল