ওসির স্ট্যাটাসে সেতু নির্মাণ, দুর্ভোগের অবসান গ্রামবাসীর

সারাদেশ

অনলাইন ডেক্স:: যশোরের চৌগাছা থানার ওসি রিফাত খান রাজীবের ফেসবুকে দেয়া এক লাইভ ভিডিও বার্তায় উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ ড.মোস্তানিছুর রহমানের তড়িৎ পদক্ষেপের কারণেই দুর্ভোগ থেকে মুক্তি পেল উপজেলার হাজরাখানা ও  নিয়ামতপুর গ্রামের সাধারণ মানুষ।

চৌগাছা উপজেলার নারায়ণপুর ইউনিয়নের হাজরাখানা ও পাতিবিলা ইউনিয়নের নিয়ামতপুর গ্রামের পাশাপাশি অবস্থান। অন্যদিকে উপজেলার তথা দেশের সুপরিচিত পীর বলুহ দেওয়ানের মাজার এই গ্রামেই। পীর বলুহ দেওয়ানের ওরসের সময় লাখ লাখ মানুষের যাতায়াতের জন্য এই নদের উপরে ছিল একটি বাশের সাঁকো। কিন্তু সেই বাশের সাঁকো পারাপারে সকলকেই ১০ টাকা করে দিতে হতো।

জানতে পেরে চৌগাছা থানার ওসি রিফাত খান রাজীব ঘটনাস্থলে এসআই গিয়াসকে পাঠালেন। এসআই গিয়াস ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করলে ওসি নিজেও সেখানে যান। সেখান থেকেই পুরো ঘটনা তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লাইভ দেখালেন। শুধু তাই না, ওসি রাজীব সেই টাকা আদায়কালী ব্যক্তিকে অবৈধভাবে টাকা উঠাতে নিষেধ করেই ক্ষ্যান্ত হলেন না বরং পুনরায় টাকা উঠালে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানিয়ে দিলেন। এ ঘটনার পরে সেই বাশের সাঁকোটি কে বা কারা রাতের আধারে ভেঙে দিলে চরম ভোগান্তিতে পড়ে ওই সব গ্রামের মানুষ।

ওসির ভিডিও এবং সাকো ভেঙে দেয়ার ঘটনা জানতে পেরে উপজেলার চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ ড. মোস্তানিছুর রহমান তড়িৎ সাঁকোটি নবনির্মাণ করতে ২০১৯-২০ অর্থ বছরের এডিবির প্রকল্পভুক্ত করেন। বুধবার (১ জুলাই) এডিবির ২ লাখ টাকা বরাদ্দের কাঠের নির্মিত সেতুটি সাধারণ মানুষদের চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করা হয়। নব নির্মিত সেতুটি উদ্বোধন করলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ড.মোস্তানিছুর রহমান, বিদায়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম,ওসি রিফাত খান রাজীব, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজনিন নাহার এবং চৌগাছার পৌর মেয়র নূর উদ্দিন আল মামুন হিমেল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *